এইচ টি এম এল কি ? – এইচ টি এম এল কোড লেখা

এইচ টি এম এল কি ? – এইচ টি এম এল কোড লেখা

আলোচ্য সূচি –

  • এইচ টি এম এল কি ? ( HTML কি? )
  • HTML শেখার প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি গুলো জানা।
  • Notepad++ (নোটপ্যাড ++) ডাউনলোড করবো কিভাবে।
  • এইচ টি এম এল কোড লিখবো কিভাবে ? এবং আউটপুট পর্যবেক্ষণ।

এইচ টি এম এল কি ? ( HTML কি? )

এইচ টি এম এল কি – এইচ টি এম এল ( HTML ) একটা Mark Up কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজ। এইচ টি এম এল কোড এর মাধ্যমের আমরা পৃথিবীর বিশাল তথ্য-ভান্ডার, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি ইন্টারনেটের মাধ্যমে মানুষের সামনে মুহূর্তেই প্রদর্শন করতে পারি। HTML কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নয়, একে Hyper Text Mark Up Language বলা হয়। এইচ টি এম এল কি ? একটা ওয়েব পেজের বিভিন্ন অংশ ব্রাউজারের মাধ্যমে কিভাবে প্রদর্শিত হবে, তা এইচ টি এম এল ( HTML 5 ) এ Mark Up ট্যাগ সমূহ ব্যবহার করে প্রকাশ করা হয় । HTML কোড হচ্ছে কত গুলো Mark Up ট্যাগ এর সমষ্টি।

সবার আগে HTML শেখা-

ওয়েব ডিজাইনিং শেখার জন্য সবার আগে HTML শেখা জরুরি। কেননা ওয়েবপেজ গুলো HTML দিয়ে লেখা হয়। সাথে অন্যান্য কিছু থাকে যেমনঃ CSS, Java Sctipt, PHP ইত্যাদি। আবারও বলে দিচ্ছি ওয়েব ডিজাইনিং করতে সবার আগে HTML তারপর অন্যকিছু শিখবে।

HTML শেখার যন্ত্রপাতি-

HTML কোড লেখার জন্য কিছু যন্ত্রপাতি লাগবে তা একটু দেখে নাও –

১) একটি কম্পিউটার

২) HTML কোড লেখার জন্য একটি Notepad বা Notepad++(আমি নোটপেড++ বেশি prefer করি।)

৩) তোমার লেখা কোড ব্রাইজারে পরীক্ষা করার জন্য একটি ব্রাউজার। যেমনঃ Google Crome, Mozilla Firefox, Opera, Internet Explorer ইত্যাদি।

Notepad++ (নোটপ্যাড ++) ডাউনলোড করো-

Notepad++(নোটপ্যা++) www.notepad-plus-plus.org ওয়েব সাইটে গিয়ে 6-8MB Notepad++(নোটপ্যাড++) এর .exe ফাইলটি ডাউনলোড করে install করে নাও। যদি ডাইনলোড করতে না পারো তবে তোমার কম্পিউটার এ ডিফল্ট Notepad দেয়া থাকে তাতেও HTML কোড লেখা যাবে।
Notepad++ (নোটপ্যাড++) এ HTML কোড লেখাঃ

Notepad++(নোটপ্যাড++) install করা হয়ে গেলে Notepad++(নোটপ্যাড++) ওপেন করে কোড লেখা শুরু করে দাও। তার জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ কর।

HTML কোড

১) প্রথম একটি নতুন ফাইল খুলে তা যেকোনো নাম দিয়ে save কর, তবে অবশ্যই নামের শেষে .html দিয়ে হবে। (উদাহরণঃ index.html)

প্রথম ধাপঃ তোমার নোটপ্যাড ওপেন কর।

দ্বিতীয় ধাপঃ একটি নতুন ফাইল খুলো। File > New (শর্টকাটঃ ctrl + N )

তৃতীয় ধাপঃ যদি ওয়েব পেজে বাংলা লিখতে চাইলে অবশ্যই নিচের ছবির মত Encode in UTF-8 সিলেক্ট করে সেভ করবে।

চতুর্থ ধাপঃ এবার ফাইলটি সংরক্ষণ করো। প্রথমে File এ ক্লিক করে Save as এ ক্লিক করো, একটি নতুন Window আসবে। তুমি যেখানে তোমার এইচটিএমএল সংরক্ষণ করতে চাও সেই ড্রাইভারে সংরক্ষণ করতে পারবে। File name এর জায়গায় তোমার ইচ্ছা মতো নাম দিতে পারবে শুধু নামের শেষে .html দিতে হবে।

২) এবার নিচের কোডটুকু এই ফাইলের মাঝে লিখে আবার save কর। ভয় পাওয়ার কিচ্ছু নেই, আপাদত তোমাকে কোড বুঝতে হবে না শুধু দেখে দেখে টাইপ কর, পরের অধ্যায়ে এই কোড এর ব্যাখ্যা দেয়া আছে।

<!DOCTYPE html>
<html>

<head>
<title>This Is Title</title>
</head>

<body>

<h1>My First Heading.</h1>
<p>My first paragraph.</p>

</body>
</html>

৩) এখন যেখানে সেভ করেছো সেখানে গিয়ে ফাইলটি একটি ব্রাউজারে open করো, নিচের মতো তোমার ব্রাউজারে আউটপুট দেখতে পাবে।

ইন্টারনেট, ওয়ার্ল্ডওয়াইডওয়েব, সার্ভার, ওয়েবসাইট, ওয়েব ব্রাউজার

ইন্টারনেট, ওয়ার্ল্ডওয়াইডওয়েব, সার্ভার, ওয়েবসাইট, ওয়েব ব্রাউজার

ইন্টারনেটের ইতিহাস

ইন্টারনেট, ওয়ার্ল্ডওয়াইডওয়েব, সার্ভার, ওয়েবসাইট, ওয়েব ব্রাউজার ইত্যাদি নিয়ে আলোচনার আগে ইন্টারনেটের ইতিহাস জেনে নেই। ইন্টারনেট সম্পর্কে জনসাধারণ প্রথম ধারণা প্রবর্তিত হয়েছিল, যখন কম্পিউটার বিজ্ঞান অধ্যাপক লিওনার্ড ক্রাইনরক তার গবেষণাগার ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া, লস অ্যাঞ্জেলেস (ইউসিএলএ) থেকে অর্পানেটের মাধ্যমে একটি বার্তা স্ট্যানফোর্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসআরআই) তে পাঠান। নেটওয়ার্ক সরঞ্জামের দ্বিতীয় অংশ সেখানে স্থাপিত করা হয়েছিল। ১৯৮০ সালের শেষের দিকে এবং ১৯৯০ সালের শুরুর দিকে বাণিজ্যিক ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারীরা (আইএসপির) আবির্ভাব হতে থাকে।১৯৯৫ সালে ইন্টারনেটকে বানিজ্যিক পণ্যে পরিণত হয়।

১৯৯০ সালের মাঝামাঝি থেকে, ইন্টারনেট সংস্কৃতিতে ও বানিজ্যে এবং কাছাকাছি-তাৎক্ষণিক যোগাযোগ যেমন, ইলেকট্রনিক মেইল, ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং, ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল (ভিওআইপি) “ফোন কল”, দ্বি-মুখ ইন্টারেক্টিভ ভিডিও কল এবং ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবসহ ইন্টারনেট ফোরাম, ব্লগ, সামাজিক নেটওয়ার্কিং পরিষেবা এবং অনলাইনে কেনাকাটার ওয়েব সাইটসমূহে একটি বিপ্লবী প্রভাব বিস্তার করে।
গবেষণার এবং শিক্ষা সম্প্রদায় অব্যাহত বিকাশ এবং উন্নত নেটওয়ার্ক যেমন, এনএসএফস’র অতি উচ্চ-দ্রুতগতির ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক পরিষেবা (ভিবিএনএস), ইন্টারনেট২ এবং জাতীয় ল্যামডারেল ব্যবহার করে।
আজ ইন্টারনেট অনলাইন তথ্য, ব্যবসা, বিনোদন এবং সামাজিক নেটওয়ার্কিং এর জন্য ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে।

ইন্টারনেট, ওয়ার্ল্ডওয়াইডওয়েব, সার্ভার, ওয়েবসাইট, ওয়েব ব্রাউজার


ইন্টারনেট কি ?

ইন্টারনেট এক বিশেষ ধরনের যোগাযোগ প্রযুক্তি যা বিশ্বব্যাপী কম্পিউটার সংযোগের মাধ্যমে কম্পিউটার থেকে কম্পিউটারে তথ্য আদান-প্রদান করার প্রক্রিয়াই হল ইন্টারনেট সিস্টেম। ইন্টারনেট ব্যবস্থায় ই-মেইল এর মাধ্যমে চিঠি আদান-প্রদান করা যায়। অর্থাৎ পরস্পরের সাথে সংযুক্ত অনেকগুলো কম্পিউটার নেটওয়ার্কের সমষ্টি যা সাধারন মানুষের জন্য উন্মুক্ত

ওয়ার্ল্ডওয়াইডওয়েব কি ?

ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (World Wide Web) বা WWW বা W3 মূলতঃ ওয়েব নামে পরিচিত। World Wide Web হচ্ছে ইন্টারনেটে তথ্য আদান প্রদানের একটি পদ্ধতি যার সাহায্য নিয়ে একটি ওয়েব ব্রাউজারের সহায়তা নিয়ে একজন দর্শক ওয়েবপাতা বা ওয়েবপেজ দেখতে পারে এবং সংযোগ বা হাইপারলিঙ্ক ব্যবহার করে নির্দেশনা গ্রহণ ও প্রদান করতে পারে।

ওয়েবপেজ বা ওয়েবসাইট কি ?

ইন্টারনেটে তথ্যে গুলো সংরক্ষিত থাকে ওয়েবপেজ বা ওয়েবসাইটে। ওয়েবপেজ বা ওয়েবসাইট হচ্ছে www বা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব এর একটি ডকুমেন্টেশন ফাইল যাতে সকল প্রকারের তথ্য, লিঙ্ক, মাল্টিমিডিয়া ইত্যাদি প্রদর্শনের জন্য নির্দেশনা দেয়া থাকে। এই ওয়েবপেজ বা ওয়েবসাইট গুলো সাধারনত html , java script বা css ইত্যাদি বেসিক ল্যাগুয়েজ ব্যবহার করা হয়। আর এই ওয়েবপেজ বা সাইট গুলো একটি সার্ভার এ সংরক্ষন করা থাকে। এবং ওয়েবপেজ বা সাইট এর জন্য নির্দিষ্ট কোন নাম বা ডোমেইন এ রাখা হয়। যখন আমরা ওয়েব ব্রাউজারে ঐ নির্দিষ্ট ডোমেইনের নাম লিখে ইণ্টার প্রেস করি তখন ঐ পেজটি আমারা দেখতে পাই।

ওয়েবপেজ কিভাবে তৈরি করে ?

 

ওয়েব পেজ এ আমরা html , java script বা css ইত্যাদি বেসিক ল্যাগুয়েজ ব্যবহার করে থাকি। html এর সাথে css দিয়ে ওয়েব পেজটি আরো দৃষ্টিনন্দন করা যায়, তাই ওয়েব পেজ তৈরির জন্য css শেখা জরুরি।

ওয়েব সার্ভার কি করে ?

সার্ভার বিরামহীন কাজ করে এবং সর্বদা ওয়েব ব্রাউজার থেকে কোন অনুরোধ এর জন্য অপেক্ষা করে। যখন ব্রাউজার থেকে কোন অনুরোধ আসে কোন ওয়েব পেজ এর জন্য তখন সার্ভার ঐ ওয়েব পেজ খুঁজে বের করে এবং তা বাউজারের নিকট পাঠিয়ে দেয়।

ওয়েব ব্রাউজার কি করে ?

ব্রাউজার যখন কোন লিংক এ ক্লিক করি তখন ব্রাউজার সার্ভারে একটি অনুরোধ পাঠায় ঐ লিংক এ যে সকল তথ্য আছে তা পাঠানোর জন্য, পরে সার্ভার যেই তথ্য পাঠায় তা ব্রাউজার উইন্ডোতে