অধ্যায়-১.২ : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি – বিশ্বগ্রামের সুবিধা ও অসুবিধা

গ্লোবাল ভিলেজ বা বিশ্বগ্রাম কী ? বিশ্বগ্রামের সুবিধা ও অসুবিধাগুলো কি কি ?

নম্বর : ১ + ২ + ২ = ৫

উত্তর:

বিশ্বগ্রামের সুবিধা ও অসুবিধা গুলো আলোচনার আগে বিশ্বগ্রাম কি জানা যাক। গ্লোবাল ভিলেজ বা বিশ্বগ্রাম হলো এমন একবি পরিবেশ, যেখানে সমগ্র পৃথিবীকে একটি গ্রাম হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যেখানে কোনো ব্যক্তি মুহূর্তের মধ্যে বিশ্বের যে কোনো স্থানে অবস্থানরত অন্য ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ, তথ্য আদান-প্রদান করতে পারে। বিশ্বগ্রামের সুবিধা ও অসুবিধা উভয়ই রয়েছে, এখানে তা আলোচনা করা হয়েছে।

বিশ্বগ্রামের সুবিধা:-

১. মানুষের জীবন যাত্রার মানের উন্নয়ন ঘটছে।
২. আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে একদেশের লোক অন্য দেশের কোনো বায়ারের কাজ ঘরে বসেই করতে পারছে এবং বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন করতে পারছে।
৩. ঘরে বসে সহজেই উন্নত চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে।
৪. ই-লানির্ং এর মাধ্যমে যেমন, ভিডিও টিউটোরিয়াল, অনলাইন লাইব্রেরি, ইবুক ব্যবহারের ফলে শিক্ষা সহজ লভ্য হচ্ছে এবং শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটছে।
৫. জীবনযাত্রার মান উন্নত হচ্ছে।
৬. অডিও কনফারেন্সিং, ভিডিও কনফারেন্সিং, চ্যাট, ই-মেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হয়েছে।
৭. ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটেছে এবং লেনদেন আরো সহজতর হচ্ছে।
৮. ইন্টারনেটের মাধ্যমে ঘরে বসে অফিস-আদালতের কাজ করা যায়।
৯. বিভিন্ন দেশের সাংস্কৃতিক তথ্যাদি জানা এবং বিনিময় করা যাচ্ছে।
১০. বিশ্বভাতৃত্ববোধ জাগ্রত হচ্ছে।

বিশ্বগ্রামের অসুবিধা:-

১. এক দেশের সংস্কৃতি অন্যদেরশের সাথে মিশে যাচ্ছে, যা নিজ দেশীয় সংস্কৃতির জন্য কখনো কখনো হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে।
২. ইন্টারনেট প্রযুক্তি ব্যবহার করে হ্যাকিং এ মাধ্যমে গোপনীয় তথ্য চুরি হচ্ছে।
৩. সাইবার আক্রমণ সংঘটিত হচ্ছে।
৪. ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চুরির মাধ্যমে ই-কমার্স পদ্ধতিটিকে হুমকির মুখে ফেলেছে।
৫. ফাইল শেয়ার করার ওয়েবসাইটগুলোর মাধ্যমে কপিরাইটের বস্তুসমূহের বিতরণ ও ব্যবহার উৎসাহিত হচ্ছে।
৬. মানুষের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লংঘিত হচ্ছে।

নিচের কুইজে অংশ গ্রহণ করার পূর্বে উপরের লেকচারটি পুনরায় দেখে নাও -

Email

বিশ্বগ্রাম হচ্ছে -

বিশ্বগ্রামের সুবিধা নয় কোনটি - 


1252 Total Views 2 Views Today